আজ ১লা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৪ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

চন্দনাইশে বসতবাড়ির ৩ পাশে ওয়াল দেয়ায় রাস্তার পাশে লাশ রেখে দাফন কাফন সম্পন্ন 

নিজস্ব প্রতিবেদক: চন্দনাইশের সাতবাড়িয়াতে ইদ্রিসের বাড়ির ৩ দিকে প্রভাবশালী পরিবারের ওয়াল নির্মাণের কারণে মো. ইদ্রিস(৫০)’র লাশ ঘরে ঢুকাতে পারছেনা না তার পরিবার। রাস্তার পাশে চলছে দাফন কাফনের কাজ। ৯ মার্চ (শুক্রবার) উপজেলার সাতবাড়িয়া বহরম পাড়া মৌলবী বাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ইদ্রিস ঐ এলাকার আবদুল মাবুদের ছেলে। পারিবারিক ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আবদুল মাবুদের ১ম ছেলে ইদ্রিস গত ৭ মার্চ বৃহস্পতিবার গভীর রাতে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে কক্সবাজার তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে মৃত্যু বরণ করেন। ভোরে তার লাশ গ্রামের বাড়িতে আনা হলে বাড়ির ৩ দিকে ১০ ফুট উঁচু ওয়াল থাকায় লাশ ঘরে ঢুকাতে পারেনি। অপর দিকে একটি খাই থাকায়  ঘরে কেউ যাতায়াত করতে পারে না। ফলে ইদ্রিসের লাশ চলাচলের রাস্তার পাশে রেখে দাফনের ব্যবস্থা করেছেন তার আত্মীয় স্বজন। মৃত ইদ্রিসের পিতা মাবুদ বলেছেন, তার ছেলের লাশ ঘরে নিতে না পেরে রাস্তার পাশে রেখে গোসল দেয়ার পর ধর্মীয় রীতিনীতি অনুযায়ী জুমার নামাজের পর দাফন করা হয়। অথচ এ বিষয়ে ২ মাস পূর্বে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বরাবরে পৃথক পৃথক লিখিত অভিযোগ করার পর ও কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি প্রসাশন। ওয়াল নির্মানকারীরা অর্থবিত্ত ও প্রভাবশালী হওয়ায় এ বিষয়ে এলাকাবাসী মুখ খুলতে সাহস পায়নি। এ ধরনের অমানবিক দৃশ্য এলাকার সাধারণ মানুষ হতবাক। এ ব্যাপারে স্থানীয় সাংবাদিকরা বিষয়টি উপজেলা ও থানা প্রসাশনকে জানানোর পরও আইনগত কোন পদেক্ষপ নেয়নি প্রশাসন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহমুদা বেগম বলেছেন, বিষয়টি সম্পর্কে তিনি জানেন এবং থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে অভিহিত করেছেন। ব্যক্তিগত জমিতে ওয়াল নির্মাণ করলে আমাদের কিছু করার থাকে না। আদালত তদন্ত প্রতিবেদন চাইলে সেটাতে সরেজমিনে তদন্ত করে রিপোর্ট দেয়া যায়। আইনগতভাবে না হলে কার্যকরী কোন পদক্ষেপ নেয়া কঠিন হয়ে যায়। এরপরেও বিষয়টি যেহেতু অমানবিক, তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর