আজ ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৪ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

বিতরের নামাজ ছুটে গেলে করণীয়

ধর্ম ডেস্ক

বিতর আরবি শব্দ, এর অর্থ হলো বিজোড়। এই নামাজের রাকাত বিজোড় সংখ্যক হওয়ায় এটিকে বিতরের নামাজ বলা হয়। বিতরের নামাজ আদায় করা ওয়াজিব। এ প্রসঙ্গে আল্লাহর রাসুল (সা.) বলেছেন-

বিতরের নামাজ আবশ্যক বা ওয়াজিব। তাই যে ব্যক্তি বিতরের নামাজ আদায় করল না, সে আমার উম্মতের অন্তর্ভুক্ত নয়। (সুনানে আবু দাউদ: ১৪১৯)

আবু সায়ীদ খুদরি (রা.) থেকে বর্ণিত, নবিজি (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) বলেন, যে ব্যক্তি বিতর নামাজের কথা ভুলে যায় বা বিতর পড়া ছাড় ঘুমিয়ে পড়ে সে যেন স্মরণ হওয়ামাত্রই বা ঘুম থেকে ওঠামাত্রই বিতর পড়ে নেয়। (মুসনাদে আহমদ: ১১২৬৪)

বেতর নামাজ আদায়ের সময়

ইশার নামাজের পর থেকে সুবহে সাদিক পর্যন্ত বিতরের নামাজ আদায় করা যায়। প্রতিদিন এ সময়ের মধ্যে বিতর নামাজ পড়া ওয়াজিব।

বিতর নামাজ আদায়ের পদ্ধতি

বিতর নামাজ সাধারণত তিন রাকাত পড়া হয়। তবে কেউ চাইলে সর্বোচ্চ ১১ রাকাত পর্যন্ত পড়তে পারবে। এই নামাজ অন্যান্য নামাজের মতো দুই রাকাত নামাজ পড়ে প্রথম বৈঠকে বসে তাশাহহুদ পড়তে হয়। তৃতীয় রাকাত পড়ার জন্য উঠে দাঁড়িয়ে সুরা ফাতিহার সঙ্গে অন্য কোনো সুরা বা আয়াত পড়ার পরপর তাকবির বলে দুহাত কান পর্যন্ত উঠিয়ে তাকবিরে তাহরিমার মতো হাত বাঁধতে হয় এবং দোয়া কুনুত পড়তে হয়। তারপর অন্যান্য নামাজের মতো রুকু, সিজদা করে সালাম ফিরিয়ে নামাজ শেষ করতে হয়।

দোয়া কুনুত

উচ্চারণ: আল্লাহুম্মা ইন্না নাসতাইনুকা ওয়া নাসতাগফিরুকা ওয়া নুমিনুবিকা ওয়া নাতাওয়াক্কালু আলাইকা ওয়া নুছনি আলাইকাল খাইর; ওয়া নাশকুরুকা ওয়া লা নাকফুরুকা; ওয়া নাখলাঊ ওয়া নাতরুকু মাইঁইয়াফঝুরুকা; আল্লাহুম্মা ইয়্যাকা না’বুদু; ওয়া লাকা নুসাল্লি ওয়া নাসঝুদু; ওয়া ইলাইকা নাসআ ওয়া নাহফিদু; নারঝু রাহমাতাকা ওয়া নাখশা আজাবাকা; ইন্না আজাবাকা বিলকুফফারি মুলহিক্ব।

অর্থ: হে আল্লাহ! আমরা আপনার সাহায্য প্রার্থনা করি, আপনার কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করি, আপনার প্রতি ঈমান রাখি এবং আপনার ওপর ভরসা করি, আপনার উত্তম প্রশংসা করি, আপনার শোকর আদায় করি, আপনার প্রতি অকৃতজ্ঞ হই না, যারা আপনার নাফরমানি করে, তাদেরকে পরিত্যাগ করি এবং তাদের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করি। হে আল্লাহ! আমরা আপনারই ইবাদাত করি, আপনার জন্যই নামাজ পড়ি এবং আপনার জন্যই সিজদা করি, আপনার দিকেই ধাবিত হই, আপনার হুকুম পালনের জন্যই প্রস্তুত থাকি, আপনার দয়ার আশা করি, আপনার শাস্তিকে ভয় পাই। নিঃসন্দেহে আপনার শাস্তি ভোগ করবে কাফির সম্প্রদায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর